ট্রেনের টিকিটের নতুন মোবাইল অ্যাপের উদ্বোধন

অনলাইনে ট্রেনের টিকিট কাটতে ‘রেলসেবা’ নামে নতুন মোবাইল অ্যাপ চালু করেছে বাংলাদেশ রেলওয়ে। বুধবার (২২ জুন) দুপুরে রেল ভবনে এ অ্যাপের উদ্বোধন করেন রেলমন্ত্রী নূরুল ইসলাম সুজন।

উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে রেলমন্ত্রী বলেন, এখন থেকে রেল যাত্রীরা বাংলাদেশ রেলওয়ের ই-টিকেট ওয়েবসাইটের https://eticket.railway.gov.bd/ পাশাপাশি ‘রেলসেবা’ অ্যাপ ব্যবহার করে ট্রেন টিকিট কাটতে পারবেন। এর মধ্যমে টিকিট কালোবাজারি বন্ধ হবে। স্বাচ্ছন্দ্যে যাতায়াত করতে পারবেন যাত্রীরা।

ই-অ্যাপ তৈরি ও ব্যবস্থাপনার কাজ করেছে বাংলাদেশ রেলওয়ের টিকিটিং পার্টনার সহজ-সিনেসিস-ভিনসেন জেভি। সহজ জানায়, নতুন ‘রেল সেবা’ অ্যাপটি বর্তমানে গুগল প্লে স্টোরে পাওয়া যাচ্ছে। টিকিট কাটার জন্য যাত্রীদের অ্যাপটি ডাউনলোড করে নিজের নাম, মোবাইল নম্বর, ই-মেইল অ্যাড্রেস, জাতীয় পরিচয়পত্র বা জন্মনিবন্ধন নম্বর ইত্যাদি তথ্য দিয়ে রেজিস্ট্রেশন করতে হবে। তবে কোনো যাত্রী যদি এরই মধ্যে বাংলাদেশ রেলওয়ের ই-টিকিট ওয়েবসাইটে রেজিস্ট্রেশন করেন তাহলে তাকে দ্বিতীয়বার রেজিস্ট্রেশন করতে হবে না। শুধু মোবাইল নম্বর ও পাসওয়ার্ড দিয়ে লগইন করলেই হবে।

‘রেলসেবা’ অ্যাপ ব্যবহার করে টিকিট কাটার জন্য যাত্রীকে তার পছন্দ অনুযায়ী যাত্রা শুরুর স্টেশন, গন্তব্য স্টেশন, পছন্দ অনুযায়ী ট্রেনের ক্লাস ও যাত্রার তারিখ সিলেক্ট করতে হবে। একই সঙ্গে ‘ট্রেন ডিটেইলস’ থেকে সহজেই ট্রেনের বিস্তারিত তথ্য দেখতে পারবে। তারপর অ্যাভেলেবল ট্রেন থেকে পছন্দ মতো বগি এবং সিট সিলেক্ট করে অনলাইন পেমেন্টের (ডেবিট বা ক্রেডিট কার্ড অথবা এমএফএস) মাধ্যমে টিকিট কেটে ফেলতে পারবেন। এরই মাধ্যমে ই-টিকিট যাত্রীর রেজিস্ট্রার করা ই-মেইলে পাঠানো যাবে।

সহজের জনসংযোগ বিভাগের ব্যবস্থাপক ফারহাত আহমেদ জানান, এখন থেকে একই সঙ্গে যাত্রী ই-টিকিট অ্যাপ থেকে নিজের সুবিধামতো ডাউনলোড করে নিতে পারবে। যাত্রীদের সুবিধার কথা চিন্তা করে ‘রেলসেবা’ অ্যাপের ন্যাভিগেশন বারে সংযুক্ত করা হয়েছে নানান ফিচার।

‘ভ্যারিফাই টিকিট’ ট্যাব থেকে সহজেই টিকিট ভ্যারিফাই করার সুবিধা রয়েছে। এছাড়া ‘মাই টিকিটসের’ মাধ্যমে সাতদিন পর্যন্ত পুরাতন ও আসন্ন ট্রিপ ডিটেইলস দেখা যাবে। তিনি আরও জানান, যাত্রীরা প্রয়োজনে ‘মাই অ্যাকাউন্টস’ ট্যাবের মাধ্যমে রেজিস্ট্রেশনের সময় নিজের দেওয়া তথ্য, পাসওয়ার্ড আপডেট করে নিতে পারবে।

অনুষ্ঠানে রেলপথ মন্ত্রণালয়ের সচিব মো. হুমায়ুন কবীর ও রেলওয়ের মহাপরিচালক ধীরেন্দ্র নাথ মজুমদার উপস্থিত ছিলেন।

Be the first to comment

Leave a Reply

Your email address will not be published.


*